বিসিএস প্রিলি ও লিখিত প্রস্তুতিঃ ১৯৫৪ সালের নির্বাচন

পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় পরিষদের ১৯৫৪ খ্রীস্টাব্দের নির্বাচনে মুসলিম লীগকে ক্ষমতাচ্যুত করার লক্ষ্যে অন্যান্য দল মিলে যুক্তফ্রন্ট নামীয় একটি সমন্বিত বিরোধী রাজনৈতিক মঞ্চ গঠন করার উদ্যোগ নেয়া হয় এবং আওয়ামী মুসলিম লীগ ১৯৫৩ সালের ৪ ডিসেম্বর তারিখে কৃষক শ্রমিক পার্টি, পাকিস্তান গণতন্ত্রী দল ও পাকিস্তান খেলাফত পার্টির সঙ্গে মিলে যুক্তফ্রন্ট গঠন করে। সাথে আরো ছিল মৌলানা আতাহার আলীর নেজামে ইসলাম পার্টি। [১] বামপন্থী গনতন্ত্রী দলের নেতা ছিলেন হাজী মোহাম্মদ দানেশ এবং মাহমুদ আলি সিলেটি।

যুক্তফ্রন্টের প্রধান তিন নেতা ছিলেন মওলানা ভাসানী, শেরে বাংলা একে ফজলুল হক এবং হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী। এই যুক্তফ্রন্ট ২১ দফার একটি নির্বাচনী ইশতেহার প্রকাশ করে। ঐ ইশতেহারের মধ্যে প্রধান দাবি ছিল লাহোর প্রস্তাবের ভিত্তিতে পূর্ববঙ্গকে পূর্ণ স্বায়ত্তশাসন প্রদান করা, বাঙালা ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা হিসাবে স্বীকৃতি দেয়া, ২১শে ফেব্রুয়ারী শহীদ দিবস ও সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা, ভাষা শহীদদের স্মৃতিরক্ষার্থে শহীদ মিনার নির্মাণ করা ইত্যাদি।
১৯৫৪ সালের মার্চের ৮ থেকে ১২ তারিখ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত পূর্ব পাকিস্তান পরিষদের নির্বাচনে ২৩৭টি মুসলিম আসনের মধ্যে যুক্তফ্রন্ট ২২৩টি আসন অর্জ্জন করে। তন্মধ্যে ১৪৩টি পেয়েছিল মওলানা ভাসানীর নেতৃত্বাধীন আওয়ামী মুসলিম লীগ, ৪৮টি পেয়েছিল শেরে বাংলা এ. কে. ফজলুল হকের কৃষক শ্রমিক পার্টি, নেজামী ইসলাম পার্টি লাভ করেছিল ২২, গণতন্ত্রী দল লাভ করেছির ১৩টি এবং খেলাফত-ই-রাব্বানী নামক দলটি ১টি আসন। ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল মুসলিম লীগ সম্পূর্ণরূপে এ নির্বাচনে পরাভূত হয় ; তারা কেবল ৯টি আসন লাভ করতে সমর্থ হয়।
এ নির্বাচনে সংখ্যালঘু ধর্মীয় সম্প্রদায়ের জন্য ৭২টি আসন সংরক্ষিত ছিল। এগুলোর মধ্যে কংগ্রেস লাভ করেছিল ২৪টি আসন, কমিউনিস্ট পার্টি ৪টি, শিডিউল্ড কাস্ট ফাউন্ডেশন ২৭টি, গণতন্ত্রী দল ৩টি এবং ইউনাইটেড পগ্রেসিভ পার্টি ১৩টি আসন লাভ করেছিল। একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী একটি আসনে জয়ী হয়েছিলেন।
১৯৫৪ সালের ৩ রা এপ্রিল শেরে বাংলা এ. কে. ফজলুক হক চার সদস্য বিশিষ্ট যুক্তফ্রন্ট মন্ত্রীসভা গঠন করেন। পূর্ণাঙ্গ মন্ত্রী পরিষদ গঠন করা হয় ১৫ মে তারিখে। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন শেরে বাংলা আবুল কাশেম ফজলুল হক।

১৯৫৪ সালের ৩১ মে পাকিস্তানের গভর্ণর জেনারেল গোলাম মোহাম্মদ যুক্তফ্রন্ট মন্ত্রী পরিষদ বাতিল করে দিয়ে শাসনতন্ত্রের ৯২ (ক) ধারা জারীর মাধ্যমে প্রদেশে গভর্নরের শাসন প্রবর্তন করেন।

১৯৫৪ যুক্তফ্রন্ট এবং নির্বাচন নিয়ে কিছু প্রশ্নঃ
১. যুক্তফ্রন্ট গঠিত হয় – ৪ ডিসেম্বর, ১৯৫৩।
২. যুক্তফ্রন্টের রাজনৈতিক দল – ৪/৫
A. মাওলানা ভাসানীর নেতৃত্বাধীন আওয়ামী মুসলিম লীগ
B. এ কে ফজলুল হক নেতৃত্বাধীন কৃষক শ্রমিক পার্টি
C. মওলানা আতাহার আলীর নেতৃত্বাধীন নেজাম- ই- ইসলাম
D. হাজি দানেশের নেতৃত্বাধীন বামপন্থী গণতন্ত্রী দল
৩. যুক্তফ্রন্টের প্রতিক ছিলো – নৌকা
৪. যুক্তফ্রন্টের দফা ছিলো – ২১ দফা
৫. পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়- ৮-১২ মার্চ, ১৯৫৪
৬. যুক্তফ্রন্ট জয় লাভ করে – ২২৩ আসলে ( মুসলিমদের দ্য ২২৭ টির মধ্যে) মোট আসন ছিল : ২৩৭
৭. যুক্তফ্রন্ট মুখ্যমন্ত্রী হন – এ কে ফজলুল হক
৮. কৃষি, সমবায়, ও পল্লি উন্নয়ন মমন্ত্রনালয়ের দায়িত্বে ছিলেন – শেখ মুজিবুর রহমান
৯. যুক্তফ্রন্ট সরকার মাত্র ৫৬ দিন ক্ষমতায় ছিলেন।
১০. যুক্তফ্রন্ট সরকার ভেঙে দেওয়া হয় – ১৯৫৪ সালের ৩০ মে

Share :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!